আজ বাংলাদেশের প্রায় প্রতিটি ইউনিয়ন পর্যায়েই চলছে নানা দুর্নীতি-অনিয়ম। ক্ষমতার অপব্যবহার করে যা না তাই করে আসছে কিছু অসাধু ব্যক্তিবর্গ। আর এরই জের ধরে এবার জানা গেল, ক্ষমতার জোরে দীর্ঘদিন ধরে বিদ্যালয়ের মাঠ দখল করে বালু ব্যবসার চালিয়ে যাওয়ার অভিযোগ উঠেছে বরিশালের বানারীপাড়ার সৈয়দকাঠি ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন মৃধার বিরুদ্ধে।


এসইএসডিপি মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠ অবৈধভাবে দখল করে বালুর ব্যবসা আসছিলেন তিনি। আর এর ফলে স্কুল শিক্ষার্থী থেকে শুরু সবাইকেই নানা সমস্যারমুখে পড়তে হয়।

জানা গেছে, উপজেলার সৈয়দকাঠির সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ও সাবেক বিএনপি নেতা আনোয়ার হোসেন মৃধা দীর্ঘদিন ধরে স্থানীয় এসইএসডিপি মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠের একাংশ দখল করে বালুর ব্যবসা করে আসছেন। ফলে ঝড়-বাতাসে বালু উড়ে ওই বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও শিক্ষকদের স্বাস্থ্য মারাত্মক হুমকির মধ্যে পড়েছে। বিদ্যালয়ের প্রধানশিক্ষক মিলন কান্ত সরকার বালু ব্যবসায়ী সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন মৃধাকে মাঠ পরিষ্কার করে অন্যত্র বালু ব্যবসা করার জন্য বার বার অনুরোধ জানালেও তিনি তাতে কোন কর্ণপাত করেননি।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, বিএনপি ছেড়ে আওয়ামী লীগে যোগদান করা প্রভাবশালী সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন মৃধার বিরুদ্ধে ওই স্কুল-সংলগ্ন সন্ধ্যা নদীর শাখা কঁচা নদীর তীরের সরকারি খাস সম্পত্তি দখল করে রাইস মিল নির্মাণসহ ইট, বিভিন্ন ধরনের বালু, খোয়া ও ধান-চালের (কুটিয়ালী) ব্যবসা করারও অভিযোগ রয়েছে। সৈয়দকাঠি এসইএসডিপি মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধানশিক্ষক মিলন কান্ত সরকার বলেন, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন মৃধা দীর্ঘদিন ধরে স্কুলের মাঠের একাংশ দখল করে বালুর ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছেন। বার বার অনুরোধ করার পরেও তিনি মাঠ পরিষ্কার করে দেননি। বাতাসে বালু উড়ে শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও শিক্ষকদের স্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। এছাড়া বাতাসে বালু উড়ে পথচারী, স্কুল-সংলগ্ন বসতবাড়ি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানসহ জনসাধারণ চলাচলে চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন।

এদিকে, সৈয়দকাঠি এসইএসডিপি মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধানশিক্ষক মিলন কান্ত সরকার এ ব্যপারে গত ২০ মে বানারীপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রিপন কুমার সাহার কাছে লিখিত অভিযোগ করেছিলেন। উপজেলা চেয়ারম্যান, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তার কাছেও ওই অভিযোগের অনুলিপি দেওয়া হয়েছিল। অভিযোগ দেওয়ার পরে গত চার মাসেও এ ব্যাপারে কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি।

এ বিষয়ে সৈয়দকাঠির সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন মৃধা বলেন, সরকারি ভাবে পাওয়া ভূমিহীনদের সম্পত্তি তিনি ক্রয় করে সেখানে বালুসহ বিভিন্ন ব্যবসা করছেন এবং সেই সম্পত্তির কিছু অংশ ওই স্কুলেও দান করেছেন।


তবে স্কুলের মাঠ দখল করে সাবেক এই চেয়ারম্যানের বালু ব্যবসা চালিয়ে যাওয়ার ফলে যেমন খেলাধুলা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে শিক্ষার্থীরা, তেমনই বাতাসে বালু উড়ে তাদের স্বাস্থ্য মারাত্মক ক্ষতির মুখে পড়ছে বলেও দাবি করেছেন অনেকেই।


এদিকে এ ব্যাপারে কোনো ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে কিনা তা জানতে বানারীপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রিপন কুমার সাহার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি সংবাদ মাধ্যমকে জানান, এ ব্যাপারে মোবাইল কোর্ট পরিচালনাসহ প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।