বাংলাদেশের কিংবদন্তি অভিনেতা এ টি এম শামসুজ্জামান গতকাল হঠাৎ করে বেশ অসুস্থ হয়ে পড়েন। এরপর তাকে দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। তবে তার পরিবার মনে করেছিল এই অভিনেতা হয়তো করোনা ভাইরাসে আ’ক্রান্ত হয়েছেন। তবে তার করোনা ভাইরাসের রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। কিন্তু এখনো তার পরিবার দু’চিন্তা মুক্ত না। তার সর্বশেষ অবস্থা সম্পর্কে এবার এই অভিনেতার স্ত্রী রুনি জামান গণমাধ্যমের সাথে কথা বলেছেন।

অভিনেতা এ টি এম শামসুজ্জামান এখনো হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। বর্তমানে এ অভিনেতার শারীরিক অবস্থা আগের চেয়ে কিছুটা উন্নতির দিকে। তবে প্রবীণ এ অভিনেতার শরীরে কোনো রো’গ বাসা বেঁ’ধেছে কি না, সেটা জানতে তাঁর শরীরের প্রায় সব ধরনের পরীক্ষা–নিরীক্ষা চলছে। সব কটি পরীক্ষার ফলাফল হাতে পেলেই বাসায় ফিরবেন তিনি।

গতকাল বুধবার বিকেলে তী//ব্র শ্বা//স//ক//ষ্ট নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে তাঁকে।
শ্বা//স//ক//ষ্ট দেখে চিকিৎসকেরা প্রথম দিকে ধারণা করেছিলেন, এ টি এম শামসুজ্জামান করোনায় আ’ক্রা’ন্ত। পরে পরীক্ষার জন্য নমুনা নেওয়া হয়। ফলাফলে জানা যায় করোনা নেগেটিভ। এ অভিনেতার স্ত্রী রুনি জামান গণমাধ্যমকে জানান, হাসপাতালে ভর্তির পর থেকেই তাঁরা চিন্তিত। কারণ, এ অভিনেতার বয়স হয়েছে। শ’রী’র’ও দু’র্ব’ল। তা ছাড়া গত কয়েক বছরে একাধিক অপারেশন হয়েছে তাঁর। রুনি জামান বলেন, ’এখনো আমরা কিছুটা ভয়ের মধ্যে আছি। তিনি (এ টি এম শামসুজ্জামান) পুরোপুরি সুস্থ হয়ে বাসায় না ফিরলে চিন্তামুক্ত হতে পারছি না। গতকাল থেকেই তাঁর শরীরের নানা রকম পরীক্ষা–নিরীক্ষা চলছে। অন্য কোনো রোগ আছে কি না, তা পরীক্ষা জন্য ১০টির বেশি টেস্ট করা হয়েছে। আরও কিছু টেস্ট বাকি আছে।’

এ টি এম শামসুজ্জামানের শারীরিক অবস্থা খারাপ হলে পুরান ঢাকার একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। খবরটি গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন এ অভিনেতার মেজ মেয়ে কোয়েল আহমেদ। বুধবার কোয়েল জানান, দুই দিন ধরে খাবার খেলেই তাঁর বাবার ব//মি হচ্ছিল। শ্বা//স//ক//ষ্টও ছিল। আজ শ্বা//স//ক//ষ্টে//র মাত্রাটা বেড়ে যায়। এরপর দ্রুত চিকিৎসকের সঙ্গে কথা বলে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। তাঁরা এখনো হাসপাতালে আছেন। হাসপাতাল থেকে রুনি জামান জানান, রাত থেকে ব///মি হওয়া ও শ্বা//স//ক//ষ্ট কিছুটা কম। মূলত অ্যাজমার কারণে শ্বা//স//ক//ষ্ট বেড়ে গিয়েছিল। এ ছাড়া তাঁর নিয়মিত যে চিকিৎসা ও চেকআপ করা হয়, সেটার দিনক্ষণ এগিয়ে আসছিল। এ জন্য তাঁরা আগে থেকেই পরীক্ষা–নিরীক্ষার কথা ভাবছিলেন। এর মধ্যেই তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে হাসপাতালে আসার পরে চিকিৎসকেরা পরীক্ষা–নিরীক্ষার কথা বলেন। তিনি বলেন, ’সব পরীক্ষার ফল হাতে পেলেই তিনি বাড়ি ফিরতে চান। দুই দিন ধরে এমআরআই, হা//র্ট, কোভিডসহ বেশ কিছু পরীক্ষায় কিছু ধরা পড়েনি। সবকিছু ভালো থাকলে যত তাড়াতাড়ি পারা যায় তাকে নিয়ে বাসায় ফিরব।’


উল্লেখ্য, এর আগেও কয়েকবার এই অভিনেতা বেশ অসুস্থ হয়ে পড়েন। আর সেই সময় তিনি বেশ কয়েকদিন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। এরপর তিনি সুস্থ হয়ে বাসায় ফেরেন। তবে গতকাল তিনি হঠাৎ করে বেশ অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। তার পরিবার থেকে বলা হয়েছে তার এখন অনেক বয়স হয়েছে। তবে তিনি পুরোপুরি সুস্থ না হওয়া পর্যন্ত তার পরিবারের লোকেরা চিন্তামুক্ত হতে পারছেন না।