পৃথিবীতে মায়ের ভালোবাসার কোনো তুলনা হয় না। মা তার শিশু সন্তানকে নিয়ে এই করোনাকালে ৮০০ কিলোমিটার পাড়ি দিলেন পায়ে হেঁটে। মমতাময়ী মা, তার এক মাত্র বুকের ধনকে নিয়ে দীর্ঘ পথ হাঁটেন। করোনা ভাইরাসের এমন বিপর্যয়ের সময় সারা বিশ্বে অঘোষিত লকডাউন। লকাডাউনের কারণে নেই কোনো গাড়ি রাস্থায় এমন সংকটময় সময়ে অবুঝ শিশুকে নিয়ে অসহায় মায়ের দুর্বিষহ যাত্রা।

হাঁটাই নিয়তি। থমকে গেলে, ঘুমিয়ে পড়লে প্রাণে মরতে হবে। ভালই জানেন ওরা। কিন্তু কোলের অবুঝ শিশুটি সে আর কতক্ষণ হাঁটবে? ক্লান্ত হয়ে সে ঘুমিয়ে পড়েছিল সুটকেসেই। সেই সুটকেস টেনে টেনে দল বদ্ধ হয়ে আটশো কিলোমিটারের দুর্বিষহ পথ পাড়ি দিলেন এক অসহায় মা। ভারী সুটকেস নিয়ে রাস্তায় থামলে ছেড়ে যাবে দল। তাই খেয়ে না খেয়ে দিনরাত এক করে সীমাহীন কষ্ট করেছেন ওই মা। আপাতত নেটদুনিয়ায় ভাইরাল সেই মর্মান্তিক ঘটনা।

লকডাউনের জেরে বন্ধ যখন গোটা ভারতের গণপরিবহন তখন বহু শ্রমিকই পথে নেমে আসেন। দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয় বহুজনের। কেউ প্রাণ হাতে এগোতে থাকেন গন্তব্যে। তাদেরই একটি বর্গ এই দলটি। কাজ নেই, খাবার নেই, একপ্রকার বাধ্য হয়েই পাঞ্জাব থেকে বাড়ির দিকে ফিরছিলেন তারা। কিন্তু বাড়ির দূরত্ব প্রায় ৮০০ কিলোমিটার। দিনভর হাঁটা, রাতে পথের ধারেই বিশ্রাম, এই ছিল নিয়তি। সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে দলটির দেখা হয় আগ্রায়। কোথায় যাচ্ছেন জিজ্ঞেস করায় বলেন, ঝাঁসি।

পূর্ণবয়স্ক মানুষেরা জীবন বাজি রেখে হেঁটে গিয়েছেন। কিন্তু অল্প বয়সের শিশুদের পা দু’টোর কি আর সেই সামর্থ্য ছিল! অগত্যা সেই খুদে ঘুমিয়েই পড়েছিল সুটকেসের উপর। দল থেকে বিচ্ছিন্ন হওয়ার ভয়ে তাই নিয়েই হাঁটতে থাকে ওর মা। নেটিজানরা দীর্ঘশ্বাস ফেলছেন সেই ভিডিও দেখে, আর কী বা করার থাকতে পারে


প্রসঙ্গত, চলছে সারা বিশ্বে করোনা তান্ডব। করোনা ভাইরাসে মোকাবেলার লক্ষে ভারতে লকডাউন ঘোষনা করেছে দেশটির সরকার। লকডাউনে সকল মানুষ হয়ে পড়েছে অসহায়। এমন দুর্বিষহ অবস্থায় গুমান্ত শিশুকে সুটকেস রেখে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ৮০০ কিলো মিটার পথ হাঁটলেন মা। ছোট্ট এই শিশুটি মায়ের সাথা হাঁটতে হাঁটতে ক্লান্ত হয়ে ঘুমিয়ে পড়েন।