বাংলাদেশের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাষ্ট্র পরিচালনা করার পাশাপাশি অনেক আনন্দ দায়ক কাজ করে থাকেন। তিনি প্রায় সময় তার বাস ভবনে রান্না করে থাকেন। আর সেই রান্না করার ছবি ইতিমধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। তবে এবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আরও দুইটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সারা ফেলেছে। এবার দেখা গিয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সেলাই করছেন ও মাছ ধরছেন।

এবার পাওয়া গেল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মাছ ধরা ও সেলাই করার ছবি। এর আগে প্রধানমন্ত্রীর রান্না করার ছবিসহ গণভবনে শিশু ও পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কাটানো অন্তরঙ্গ ছবি বেশ আলোচনার জন্ম দিয়েছিল।

শনিবার বিশিষ্ট ব্যবসায়ী এবং প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান নিজের ভেরিফায়েড ফেইসবুক আইডি থেকে প্রধানমন্ত্রীর মাছ ধরা ও সেলাইরত দুইটি ছবি শেয়ার করেন।

প্রসঙ্গত, চলতি বছর গত ৯ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রী সংসদে সকালে উঠে মাছ ধরার কথা জানিয়েছিলেন। তিনি বলেছিলেন, সকালে উঠে আমি জায়নামাজ খুঁজি। সকালে উঠে আগে নামাজ পড়ি। নামাজ শেষে কোরআন তিলাওয়াত করি। তারপর এক কাপ চা নিজে বানাই। সকালের চা আমি নিজে বানিয়ে খাই। চা-কফি যাই বানাই নিজে বানিয়ে খাই। ছোট বোন বাসায় থাকলে দুজনের যে আগে ওঠে সে বানায়। মেয়ে পুতুল আছে। সেও আগে উঠলে বানায়। তার আগে ঘুম থেকে ওঠার পর নিজের বিছানাটা গুছিয়ে রাখি। এরপর বই-টই যা পড়ার পড়ি। আর ইদানীং করোনাভাইরাসের পরে সকালে একটু হাঁটতে বের হই। তবে আরেকটা কাজ করি এখন। সেটা বললে কী হবে (হেসে ফেলেন)। গণভবনে একটি লেক রয়েছে। হাঁটার পরে লেকের পাড়ে যখন বসি, তখন ছিপ নিয়ে বসি। মাছ ধরি।

সালমান এফ রহমান ছবি দুটি শেয়ার করে লেখেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একজন পরিপূর্ণ মানুষ। তিনি সাফল্যের সাথে ১৭ কোটি বাংলাদেশিদের ভাগ্য পরিবর্তন করেছেন। কয়েক মিলিয়ন রোহিঙ্গা মুসলমানকে আশ্রয় দিয়েছেন। এখনও প্রধানমন্ত্রী রান্না, মাছ ধরা ও সেলাইয়ে আনন্দ পান।




উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অন্যদের উৎসাহিত করার জন্য প্রায় সময় অনেক কথা শেয়ার করেন। আর তেমনি তিনি জাতীয় সংসদে বেশ কিছু কথা শেয়ার করেছিলেন। তিনি তখন বলেছিলেন ভোরে উঠে তিনি সবার আগে নামাজ পড়েন। এরপর কিছুখন হাটাহাটি করেন। আর তারপর তিনি মাছও ধরেন বলে উল্লেখ করেন। আর আজ সেই মাছ ধরার ছবি সামাজিক যোগযোগ মাধ্যমে সারা ফেলেছে।