ক্রিকেটার নাসির হোসেনের স্ত্রী তামিমা সুলতানা তাম্মির বিরুদ্ধে রাকিব নামের এক যুবক বেশ কিছু অভিযোগ তোলেন। এমনকি তামিমা তার আগের স্বামীকে ডি’ভো’র্স না দিয়ে নাসির কে বিয়ে করেছেন এমন অভিযোগ তোলা হয়। তবে এরপর ক্রিকেটার নাসির হোসেন ও তার স্ত্রী তামিমা সুলতানা তাম্মি সংবাদ সম্মেলনে এসে বেশ কিছু তথ্য তুলে ধরেন। এছাড়া তমামিমা বলেন রাকিব কে সে অনেক আগেই তালাক দিয়েছেন। তবে তামিমার তালাক নিয়ে এবার ইউনিয়ন পরিষদ বিপরীত কথা বলছে।

ক্রিকেটার নাসির হোসেনের নববিবাহিত স্ত্রী তামিমা সুলতানা তাম্মির পাঠানো তালাকের কোনো নোটিশ কাজি অফিস ও ইউনয়ন পরিষদে নেই। অথচ বুধবার ঢাকায় সংবাদ সম্মেলনে রাকিব হোসেনকে তালাক দেয়ার দাবি করেন তামিমা সুলতানা তাম্মি।

ক্রিকেটার নাসির হোসেন এবং তামিমা সুলতানা তাম্মির বিয়ে নিয়ে গত কয়েক দিন ধরেই চলছে তো’লপাড়। প্রথম স্বামী রাকিব হোসেন এরই মধ্যে মামলা করেছেন স্ত্রী তাম্মি ও নাসিরের বিরুদ্ধে। মামলায় অভিযোগ আনা হয়েছে যে, প্রথম স্বামী বর্তমান থাকতে এবং তাকে তালাক না দিয়ে দ্বিতীয় বিয়ে করেছেন তাম্মি। আর নাসিরের বিরুদ্ধে অভিযোগ, অন্যের স্ত্রীকে বিয়ে করা।

এসব অভিযোগের জবাব দিতে বুধবার ঢাকায় সংবাদ সম্মেলন করেন নাসির ও তাম্মি। সেখানে তাম্মি দাবি করেন যে, রাকিবকে অনেক আগেই তালাক দিয়েছেন তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে তালাকের কপি দেখিয়ে তাম্মি জানান, তালাকের এই কপি রাকিবের গ্রামের বাড়ি নলছিটি উপজেলার ভৈরবপাশা ইউনিয়ন পরিষদেও পাঠানো হয়েছে।

তবে এরকম কোনো নোটিশ বৃহস্পতিবার পর্যন্ত পাননি বলে জানিয়েছেন ওই ইউনিয়ন পরিষদের সচিব মাকসুদুল হক মাকসুদ।

বৃহস্পতিবার তিনি এ সংক্রান্ত রেজিস্টার দেখিয়ে বলেন, সাধারণ রেজিস্টার্ড ডাকযোগে এ জাতীয় কাগজপত্র পাঠানো হয়। রেজিস্টার্ড ডাকযোগে পাঠানো হলে তা না আসার কোনো কারণ নেই। আমাদের রেজিস্টারে এ ধরনের নোটিশ আসার কোনো প্রমাণ লিপিবদ্ধ নেই। তাছাড়া দ্বিতীয় বিয়ে নিয়ে যেরকম তোল’পাড় চলছে তা জানার পর আমরা পুনরায় যাচাই করে দেখেছি কিন্তু কোনো ধরনের নোটিশ আসার রেকর্ড নেই। সূত্র: যুগান্তর

উল্লেখ্য, ক্রিকেটার নাসির হোসেন ও তার স্ত্রী তামিমা গণমাধ্যমের সামনে এসে বলেন তারা সব নিয়ম মনেই বিয়ে করেছেন। এছাড়া তারা বলেন রাকিব নামের ওই যুবক মিথ্যা কথা বলছেন। তবে রাকিব এরপর গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেন এবং তিনি বলেন সব কিছু প্রমাণ করবেন।