আজ দেশের প্রায় প্রতিটি পর্যায়ে নানা দুর্নীতি ও অনিয়ম চালিয়ে যাচ্ছে কিছু অসাধু ব্যক্তিবর্গ। কেউ করছে ক্ষমতার অপব্যবহার, আবার কেউ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান খুলে চমকপ্রদ বিজ্ঞাপন দেখিয়ে সাধারণ মানুষকে প্রতারণার ফাঁদে ফেলে হতিয়ে নিচ্ছে লাখ লাখ টাকা। আর এরই জের ধরে এবার সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়ে আজ সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) বিআরটিসির কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, লোভ-লালসায় যারা বেপরোয়া তারা বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে দুর্নীতি করে যাচ্ছে, তাই প্রত্যেক সেক্টরে সতর্ক থাকতে হবে। দুর্নীতিবাজদের বিষয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ’জীবনকে উপভোগ করতে কত টাকা, কত সম্পদ দরকার? মৃত্যুর পরে তো এ সম্পদ সাথে নিতে পারবেন না, তখন এসব সম্পদের কি হবে?’

এসময় মন্ত্রী তার বক্তব্যে বলেন, লকডাউনের পরে আবারও পরিবহনে যাত্রীদের চাপ বেড়েছে, এ অবস্থায় যাত্রী সাধারণের চলাচলে সুবিধার কথা বিবেচনায় নিয়ে ১৬ সেপ্টেম্বর থেকে রাজধানীর উত্তরায় পুনরায় চক্রাকার বাস সেবা চালু করা হয়েছে।

তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়গুলো খুলে দেওয়ার পর ধানমন্ডি এলকায় চক্রাকার বাস সেবা পুনরায় চালুরও প্রস্তুতি রয়েছে।

বিআরটিসির মতো সেবা প্রতিষ্ঠানে দুর্নীতি যাতে বাসা বাধতে না পারে সে দিকে কঠোর নজর দেওয়ার নির্দেশনা দিয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন দুর্নীতির বিষয়ে শেখ হাসিনা সরকার জিরো টলারেন্স নীতি অবলম্বন করেছে, সুতরাং যেকোনো মূল্যে বিআরটিসিকে সুনামের ধারায় ফিরিয়ে আনতে হবে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বিগত সরকারের সময়ে বিআরটিসি ছিল দুর্নীতির আখড়া।



এদিকে ক’রো’না সংক্রমন রোধে দীর্ঘ ১ বছরেরও অধিক সময় পর দেশের সকল বিশ্ববিদ্যালয়গুলো খুলে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রশাসন। তবে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো খুলে দেওয়ার পর ধানমন্ডি এলকায় চক্রাকার বাস সেবা আবারো চালু করার প্রস্তুতি নিচ্ছে সরকার।ইতিমধ্যে দেশের প্রাথমিক, মাধ্যমিক-উচ্চ মাধ্যমিক স্কুল প্রতিষ্ঠান খুলে দিয়েছে প্রশাসন।